'বিডি ফ্রি প্রেস' বাংলাদেশের প্রথম সংবাদ সংযোগকারী ব্লগ

মূলপাতা বিশ্ব

ভূমধ্যসাগরে ভাসমান ২৬৪ বাংলাদেশি উদ্ধার


প্রকাশের সময় :২৫ জুন, ২০২১ ৩:২৯ : অপরাহ্ণ

ভাসমান বাংলাদেশিভূমধ্যসাগর থেকে ভাসমান অবস্থায় আবারও বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশিসহ ২৬৭ জন অভিবাসন প্রত্যাশীকে উদ্ধার করেছে তিউনিসিয়ার কোস্টগার্ড। এদের মধ্যে বাংলাদেশির সংখ্যা ২৬৪ জন বলে জানিয়েছে দেশটির কোস্টগার্ড।

লিবিয়া থেকে ভূমধ্যসাগর হয়ে অবৈধপথে ইউরোপ যাওয়ার সময় তাদের উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা-আইওএম।

উদ্ধার হওয়া ব্যক্তিদের পরে তিউনিসিয়ার দ্বীপ জেরবারের একটি হোটেলে রেড ক্রিসেন্টের অধীনে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

আল আরাবিয়া ইংলিশ এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) তাদেরকে উদ্ধার করা হয়। তিউনিসিয়ার কোস্টগার্ড সূত্রে খবরে জানানো হয়, অবৈধভাবে ভ্রমণের সময় নৌকা ক্ষতিগ্রস্ত হলে অভিবাসন প্রত্যাশীরা সাগরে ভাসছিলেন।

পরে নৌবাহিনীর সহায়তায় ভুক্তভোগীদের উদ্ধার করে দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় বেন গুয়ের্দেন বন্দরে নেয়া হয়। বন্দরটি লিবিয়া সীমান্তের পাশে অবস্থিত।

সেখান থেকে উদ্ধারকৃত অভিবাসীদের আর্ন্তজাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) ও রেড ক্রিসেন্টের হাতে তুলে দেয়া হয়।

আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) জানিয়েছে, করোনাভাইরাস পরিস্থিতি বিবেচনায় উদ্ধারকৃতদের তিউনিসিয়ার জেরবা দ্বীপের একটি হোটেলে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

আইওএমের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত জানুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত লিবিয়া হয়ে ইউরোপে যাওয়ার সময় এক হাজারের বেশি অভিবাসন প্রত্যাশীকে ভূমধ্যসাগর থেকে উদ্ধার করা হয়। যা গত বছরের চেয়ে ৭০ শতাংশ বেশি।

এর আগে গত ১৮ মে ভূ-মধ্য সাগরে নৌকাডুবির ঘটনায় ৩৩ বাংলাদেশিকে উদ্ধার করে তিউনিসিয়ার নৌবাহিনী।

তিউনিসিয়ার দক্ষিণ উপকূলে একটি তেল প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে লেগে থাকা একটি ধ্বংসাবশেষ জাহাজ আঁকড়ে ধরে উদ্ধারকৃতরা বেঁচে ছিলেন।

অবৈধভাবে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ মে পর্যন্ত কমপক্ষে ৭৬০ জন অভিবাসী মারা গেছেন বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে জাতিসংঘ। গতবছর এই সংখ্যাটি ছিল এক হাজার ৪০০ জন।


মতামত দিন

আরও খবর