'বিডি ফ্রি প্রেস' বাংলাদেশের প্রথম সংবাদ সংযোগকারী ব্লগ

মূলপাতা বাংলাদেশ

নারীরা পুরুষের চেয়ে ৩.৩ বছর বেশি বাঁচেন, বাংলাদেশের মানুষের গড় আয়ু বেড়ে ৭২.৮ বছর


প্রকাশের সময় :২৮ জুন, ২০২১ ২:০০ : অপরাহ্ণ

মানুষকরোনা মহামারির মাঝেও বাংলাদেশের মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে। ২০২০ সালে প্রত্যাশিত আয়ুষ্কাল ৭২.৮ বছর। এর মধ্যে পুরুষের গড় আয়ু ৭১.২ বছর। নারীর গড় আয়ু ৭৪.৫ বছর।

সেই হিসাবে, বাংলাদেশের নারীদের আয়ুষ্কাল এখন পুরুষদের তুলনায় ৩ দশমিক ৩ বছর বেশি।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) ‘বাংলাদেশ স্যাম্পল ভাইটাল স্ট্যাটিসটিক্স-২০২০’ প্রতিবেদনে এই তথ্য প্রকাশিত হয়। সোমবার পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বিবিএস কার্যালয়ে এই প্রতিবেদন প্রকাশ করেন।

বিবিএসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, পুরুষের তুলনায় নারীদের গড় আয়ু বেশি বেড়েছে। ২০২০ সালে পুরুষের গড় আয়ু বেড়ে ৭১.২ বছর ও নারীদের ৭৪.৫ বছরে দাঁড়ায়। যা ২০১৯ সালে ছিল যথাক্রমে ৭১.১ বছর ও ৭৪.২ বছর।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত পাঁচ বছরে গড়ে প্রতি বছর ০.২৪ বছর হারে আয়ু বেড়েছে। অর্থাৎ পাঁচ বছরে গড় আয়ু ১.২ বছর বেড়েছে। যা পুরুষের ক্ষেত্রে ০.৯ বছর ও নারীদের ক্ষেত্রে ১.৬ বছর বেড়েছে।

জরিপে দেখা গেছে, দেশের জনসংখ্যা এখন ১৬ কোটি ৮২ লাখ। এর মধ্যে পুরুষ ৮ কোটি ৪২ লাখ। নারী ৮ কোটি ৪০ লাখ। দেশে এখন খানার গড় আকার ৪.৩ জন।

খাওয়ার পানির ব্যবহার করছে ৯৮.৩ শতাংশ মানুষ। টয়লেট সুবিধা আছে ৮১.৫ শতাংশ।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, জনসংখ্যার স্বাভাবিক বৃদ্ধির হার ১.৩০ শতাংশ। আগের বছর ছিল ১.৩২ শতাংশ। তার আগের বছর ছিল ১.৩৩ শতাংশ। জনসংখ্যার ঘনত্ব আগের বছরের তুলনায় বেড়েছে।

এখন প্রতি বর্গকিলোমিটারে বসবাস করে ১ হাজার ১৪০ জন। আগের বছর ছিল ১ হাজার ১২৫ জন।

মনিটরিং দ্য সিচুয়েশন অব ভাইটাল স্ট্যাটিসটিক্স অব বাংলাদেশ (এমএসভিএসবি) শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়।

প্রতিবেদন প্রকাশ অনুষ্ঠানে পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, “স্বাধীনতার আগে আমি সাত কোটি জনসংখ্যার কথা শুনে ঘাবড়ে গিয়েছিলাম।

বর্তমানে সেই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬ কোটি ৮২ লাখে। তবে আশার কথা এই যে, খাদ্য উৎপাদনও বৃদ্ধি পেয়েছে। অন্যান্য খাতেও উন্নতি সাধন হয়েছে।”

“আমাদের প্রত্যাশিত আয়ুষ্কাল দ্রুত বাড়ছে। জাপানের গড় আয়ু ৮০ বছর। আমরা শীঘ্রই সেটা ধরে ফেলব,” বলেন তিনি।


মতামত দিন

আরও খবর